November 21, 2019, 11:36 am

বাংলাদেশ দলের কোচ জেমি ডে জেমি ডে।

সাফ কঠিন আসর, সমর্থকদের সবসময় ইতিবাচক থাকতে বলবো – জেমি ডে

।। খেলাধুলা ডেস্ক ।।

এশিয়াড ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের প্রাথমিক তালিকায় থাকা ৩০জন খেলোয়াড়কে পরখ করে দেখেছেন জেমি ডে। বিশেষ করে সিনিয়র খেলোয়াড়দের দেখেছেন লঙ্কানদের বিপক্ষে। তবে সিনিয়ররা তেমন ভালো পারফরর্ম করতে পারেননি। তাদের নিষ্প্রভ পারফরম্যান্সে বাংলাদেশকে ১-০ গোলে ম্যাচ হারতে হয়েছে।

প্রথমবারের মতো নকআউটে পা রেখে সাফে নতুন করে জ্বলে ওঠার আভাস দিয়েছিলো। তার আগেই শ্রীলঙ্কার কাছে প্রীতি ম্যাচে হেরে প্রত্যাশার বেলুনটা যেন কিছুটা চুপসে গেছে লাল সবুজদের।

সাফ ফুটবলে বাংলাদেশকে ঘিরে যারা স্বপ্ন দেখছেন, তাদের কাছে বড় ধাক্কা হয়ে এসেছে এমন হার। প্রতিকূল অবস্থায় বাংলাদেশ দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে দলের সামনে ঢাল হয়েই দাঁড়ালেন। পূর্ণ সমর্থন চাইলেন সমর্থকদের।

এরপরেও কোচ জেমি ডে হাল ছাড়ছেন না। ২০ সদস্যের দল চূড়ান্ত করতে তিনি আরো সময় নিতে চাচ্ছেন, আরো ৪৮ ঘণ্টা দেখবো আমি। তারপর দল চূড়ান্ত হবে। তবে ২০ সদস্যের দল চূড়ান্ত করা সহজ হবে না। শ্রীলঙ্কা ম্যাচের পর অবশ্য সবার পারফরম্যান্স দেখা হয়েছে। এখন শেষ সময়টুকুর অপেক্ষা।

২০ সদস্যের দলে সেরা খেলোয়াড়রাই থাকবেন। আর একাদশ যখন বাছাই হবে, তখন তাদের ওপর আশা-ভরসা একটু বেশি থাকবে। যেন একটি টিম হিসেবে সবাই খেলতে পারে। জেমি ডের প্রত্যাশা তেমনই, সিনিয়র কিংবা জুনিয়র যারাই থাকুক না কেন, সেরা একাদশ বাছাই করতে হবে। যারা ম্যাচ জিততে পারবে।

আমিও চাই এমন একটি দল যারা একটি টিম হয়ে খেলতে পারবে। এশিয়ান গেমসেও যেমন ভালো হয়েছে। ঠিক সেভাবে সাফে ভালো করতে চাই।নিজেদের মাঠে খেলা। তাই সমর্থকদের অংশগ্রহণ থাকবে।

জেমি ডের আশা, নীলফামারীর মতো ঢাকাতেও যেন সমর্থকরা পাশে থাকেন, নীলফামারীতে দর্শকদের সহযোগিতা ছিল অনেক। তারা আমাদের খেলোয়াড়দের উৎসাহ দিয়েছে। এমন সমর্থন সাফ ফুটবলেও চাই। এটা মনে রাখতে হবে, আগে কিন্তু আমরা সব ম্যাচ জিতিনি। সাফ কঠিন আসর। সমর্থকদের সবসময় ইতিবাচক থাকতে বলবো।

রূপসা’র আরো সংবাদ